কোন কাজ করিলে কি হয়

১। কোন সময় প্রতি কদমে ১ বছর নফল নামাজ ও রোজার নেকী হয় ?
    উত্তরঃ- নবী করীম (সা.) ফরমান , যে ব্যক্তি জুমার দিন । (১) ভালভাবে জামা কাপড় ধুইবে । (২) উত্তমরূপে গোসল করবে । (৩) সবার আগে মসজিদে যাবে । (৪) পায়ে হেটে যাবে ।(৫)  ইমামের কাছাকাছি বসবে। (৬) মনযোগ সহকারে খুঁৎবাহ শুনবে । (৭) কোন কথাবার্তা না বলবে । জুমার দিন এই ৭ টি বিষয়ের উপর আমলকারীদের আল্লাহ্‌ তা'য়ালা তার প্রতি কদমের বিনিময়ে ১ হাজার নফল নামাজ ও ১ বছরের নফল রোজার ছওয়াব দান করবেন । [তিরমিজী আবু দাউদ, ইবনে মাজা, মিশকাত]

২। ৫ সেকেন্ডে যে দোয়া ১ বার পড়লে ১ হাজার দিন পর্যন্ত নেকী লিখা হয় ? 
     উচ্চারণঃ- জাযায়াল্লাহ আন্না মুহাম্মাদাম মা-হুয়া আহ্লুও । 
নবী করীম (সা.) ফরমান, যে ব্যক্তি ১ বার এই দোয়া পাঠ করবে , ৭০ জন ফেরেশতা ১০০ দিন পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে উহার সাওয়াব লিখতে থাকবে । [ তাবারানী, তারগীব তারহীম]

৩। ১ সেকেন্ডে কিভাবে কবুল হজ্বের নেকী লাভ করা যায় ? 
     উত্তরঃ- নেক নজরে তথা স্নেহমমতার দৃষ্টিতে  মাতা-পিতার প্রতি তাকালেই কবুল হজ্বের ছওয়াব পাওয়া যায় । [ইবনে মাজাহ]

৪। কোন দিন রোজাদারকে ইফতার করালে সমস্ত উম্মতে মুহাম্মাদীকে ইফতার করানোর সমান ছওয়াব পাওয়া যায় ? 
     উত্তরঃ-  আশুরার দিন কোন রোজাদারকে ইফতার বা খানা খাওয়ালে সমস্ত উম্মতে মুহাম্মাদীকে ইফতার করালে যে ছওয়াব হত সে পরিমাণ ছওয়াব তার আমলনামায় লিখে দেয়া হবে এবং ২ রাকাত নফল নামাজ পড়লে কিয়ামত পর্যন্ত তার কবর, নূরে রৌশনী থাকবে । [আল আযকার]

৫। কত আয়াত পাঠ করলে ১৭৩ টি উঁহুদ পাহাড় সম্পরিমাণ নেকী ? 
     উত্তরঃ- পবিত্র কুরআনে ১ টি আয়াত পড়লেই ১৭৩ টি উঁহুদ পাহাড়ের ওজন সমপরিমাণ নেকী লাভ হয় । উঁহুদ পাহাড়ের ওজন একমাত্র আল্লাহ্‌ ছাড়া আর কেহই বলতে পারে না । [ফাযাঃ আওকাত]

৬। কোন ১টি রাতের এবাদত ৮৩ বছর ৪ মাসের এবাদত থেকে উত্তম ? 
      উত্তরঃ-  রমজান মাসের ২৭ তম রোজার দিবাগত রাত্রির এবাদত ১ হাজার মাস / ৮৩ বছর ৪ মাসের এবাদত করা হতে ও অতি উত্তম । [সুরা কদর]

৭ । ঘুমের সময় কি করলে সারারাত তাহাজ্জুদ পড়ার নেকী হয় ? 
      উত্তরঃ-  এশার নামাজ জামাতে পড়ে ঘুমানোর পূর্বে তাহাজ্জুদ পড়ার নিয়তে ঘুমালে সারারাত্র ঘুমায়েও তাহাজ্জুদ পড়ার নেকী আমলনামায় লেখা হয় । [ তারগীব]

৮। কোন ১টি রোজা ৬০ বছর নফল রোজার ও নফল নামায সমপরিমাণ নেকী ? 
      উত্তরঃ- যে ব্যক্তি আশুরার দিন রোজা রাখাবে এবং দান খয়রাত করবে সে ৬০ বছর নফল নামাজ ও রোজা সমপরিমাণ নেকী লাভ করবে । (মুসলিম )

৯। কোন দোয়া পড়লে ৪০ বছরের গুনা মাফ হয়ে যায় ? 
      উত্তরঃ- রমজানের ২৬ তারিখের সূর্যাস্তের পর সুবহানাল্লাহ ওয়াল হামদু-লিল্লাহ ওয়ালা ইলাহা ইল্লাল্লাহু আল্লাহু আকবার । ৪০ বার পাঠ করলে ৪০ বছরের সগীরা গুনা মাফ ও শবে কদরের নিয়তে সন্ধ্যায় গোসল করলে সমস্ত গুনা মাফ হয় । [ হাকীকতে এবাদাত ]


১০। মোয়াজ্জিন হলে কী লাভ হয় ? 
       উত্তরঃ- মুয়াজ্জিনের আজানের আওয়াজ যত বেশি বড় করবে তত বেশি তার গুনা মাফ হবে । আর যত দূর পর্যন্ত আওয়াজ পৌছবে ততদূর পর্যন্ত সকল সৃষ্টিকুলই তার জন্য গুনা মাফের দোয়া করতে থাকে এবং কিয়ামতের দিন তার পক্ষের সাক্ষি দিবে । সমস্ত নামাজীদের সমপরিমাণ নেকি দেয়া হবে । [বুখারী ]

১১। কোন দোয়া পড়লে সকল বপদ হতে রক্ষা পাওয়া যায় ? 
       উচ্চারণঃ- বিসমিল্লহিল্লাজী  লা ইয়াদুররু মায়াসমিহী শাইয়ুন ফিল আরদি ওয়ালা ফিস সামাই ওয়াহুওয়াস সামীউল আলীম । 
নবী করীম (সা.) ফরমান, যে ব্যক্তি সকাল বিকাল  এ দোয়া ৩ বার পাঠ করবে আল্লাহ্‌ ত'য়ালা তাকে সকল প্রকার বিপদ আপদ হতে রক্ষা করবেন । [তিরমিযী]

১২। কোন ব্যক্তিকে ৭০ জন শহিদের নেকী দেয়া হবে ? 
        উত্তরঃ- যে ব্যক্তি ইলমের একটি অধ্যায় শিখল এবং অন্যেকে শিখালো তার আমলনামায় ৭০ জন শহীদের নেকি দেয়া হবে । (ইলম সম্পর্কে আমি একটি পোস্ট দিয়েছি অন্নেক আগেই  চাইলে দেখে নিতে পারেন অথবা  এখানে ক্লিক করুন ) [ ইয়াহ উল উলুম]

১৩। কোন মাটি হাশরের দিন মিজানের পাল্লাকে নেকে ভারি করবে ? 
        উত্তরঃ-  প্রস্রাব পায়খানায় ব্যবহৃত ঢিলা কুলুফের মাটিগুলো কিয়ামতের দিন মিজানের পাল্লাকে নেকে ওজনে ভারী করবে । [ ফাযায়েলে আমল ]

১৪। কোন ব্যক্তির জন্য দোজখ হারাম হয়ে যায় ? 
        উত্তরঃ-  যে  ঈমানদার ব্যক্তির  আল্লাহর ভয়ে চক্ষু থেকে মাছির মস্তকের পরিমান ক্ষুদ্র পানি বিন্দু বাহির হবে আল্লাহ্‌ ঐ ব্যক্তির জন্য জাহান্নাম হারাম করে দিবেন । [মুসলিম]

১৫। সন্তানওয়ালা ব্যক্তি আর সন্তানবিহীন ব্যক্তি এবাহতে কি পার্থক্য ?
        উত্তরঃ-  সন্তানওয়ালা ব্যক্তি ২ রাকাত নামাজ আর সন্তানবীহিন ব্যক্তি ৭০-৮২ রাকাত নামাজের সমান ।
এই সম্পর্কিত তথ্য পেতে আমাদের সাথে থাকুন " ধন্যবাদ " 
(পোস্টটি কমেন্ট করে আপনার মতামত প্রকাশ করুন এবং শেয়ার করতে ভুলবেন না)

0 comments: